তাজা খবর
চট্টগ্রাম নগরীর ৩৪১ স্থানে কোরবানি, বর্জ্য অপসারণে প্রস্তুতি

চট্টগ্রাম নগরীর ৩৪১ স্থানে কোরবানি, বর্জ্য অপসারণে প্রস্তুতি

আজ রাত পেরোলেই ঈদ। আগামীকাল সোমবার চট্টগ্রাম নগরীর ৪১টি ওয়ার্ড থেকে পাঁচ হাজার টন কোরবানি পশুর বর্জ্য অপসারণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক)। সঙ্গে আরও আড়াই হাজার টন গৃহস্থলি বর্জ্যও অপসারণ করা হবে।

চসিক সূত্র জানায়, জবাইকৃত পশুর বর্জ্যগুলো বিকেল ৫টার মধ্যে প্রধান সড়ক থেকে এবং রাত ৮টার মধ্যে পুরো শহর থেকে অপসারণ করা লক্ষ্য। এ লক্ষ্যে পুরো শহরকে চারটি জোনে ভাগ করে চারজন কাউন্সিলরকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তবে কেন্দ্রীয়ভাবে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সার্বিক বিষয় তদারকি করবেন মেয়র।

এদিকে এবারও নির্দিষ্ট স্থানে কোরবানির পশু জবাইয়ের নির্দেশনা আছে মন্ত্রণালয়ের। এর আলোকে কোরবানির পশু জবাইয়ের জন্য নগরীতে ৩৪১টি স্থান নির্ধারণ করে দিয়েছে চসিক। নির্ধারিত স্থানগুলো ছাড়া অন্য কোথাও উন্মুক্ত স্থান বা সড়কে পশু জবাই না করার জন্য নগরবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

তবে কোনো কোরবানিদাতা চাইলে তার বাড়ি বা বাসার আঙিনায় পশু কোরবানি দিতে পারবেন। চসিকের নির্ধারিত পশু কোরবানির স্থানগুলোতে পানির সরবরাহ, সেবাপ্রাপ্তির বসার স্থান, এবং ব্লিচিং পাউডারের ব্যবস্থা রাখা হবে।

চসিকের পরিচ্ছন্নতা বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, কোরবানির দিন সুষ্ঠু বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিশ্চিতে প্রায় পাঁচ হাজার পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে ইতোমধ্যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সরু রাস্তা ও গলি থেকে বর্জ্য অপসারণের জন্য টমটম, হুইল ভেরু ও বর্জ্য অপসারণ কাজ তদারকিতে নিয়োজিত পরিচ্ছন্নতা বিভাগের সুপারভাইজারদের জন্য সিএনজিচালিত অটোরিকশার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

এদিকে বর্জ্য অপসারণে নাগরিকদের সুবিধার্থে একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। নগরীর কোথাও কোরবানির বর্জ্য কোরবানির দিন রাত ১০টার পরে পড়ে থাকতে দেখলে কন্ট্রোল রুমে কল করে তথ্য জানাতে পারবেন নগরবাসী। কন্ট্রোল রুমের নম্বর হচ্ছে ০৩১- ৬৩০৭৩৯, ০৩১-৬৩৩৬৪৯, ০১৭১২২৫২৬১৫, ০১৬৭৫২১৮৪৮৫। আগামী মঙ্গল ও বুধবারও কন্ট্রোল রুম খোলা থাকবে।

চসিকের প্রধান পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা শফিকুল মান্নান ছিদ্দিকী বলেন, ‘নগরীতে এক লাখ ৬০ হাজার গরু এবং ৪০ হাজার ছাগল জবাই হতে পারে। কোরবানির দিন জবাইকৃত পশুর বর্জ্য হবে পাঁচ হাজার টন এবং এবং এর সঙ্গে নিয়মিত আড়াই হাজার টন গৃহস্থলি বর্জ্য আছে। আমরা সকাল ৯টা থেকে বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম শুরু করব। রাত ৮টার মধ্যে পুরো শহরের বর্জ্য অপসারণ করা আমাদের লক্ষ্য। এ জন্য সবধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*