তাজা খবর
বয়সের ছাপ দূর করবে যে পাতা

বয়সের ছাপ দূর করবে যে পাতা

ত্বকে ও চোখের নিচের কালো দাগ তুলতে ও ত্বক উজ্জ্বল করতে কত কিছুই না করে থাকেন আপনি। তবে রুপচর্চায় বেশিরভাগ সময় আমরা শসা ও আলু ব্যবহার করি।

তবে জানেন কি রুপচর্চায় ব্যবহার করতে পারেন তুলসী পাতা।

আসুন জেনে নেই যেভাবে ত্বকের যত্নে তুলসী পাতা ব্যবহার করবেন?

টোনার

তুলসী পাতা ভালো করে পানিতে ফুটিয়ে ঠাণ্ডা করে টোনার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

ব্রণ

যাদের খুব বেশি ব্রণ হয়, ফুটন্ত পানিতে প্রতিদিন ৪-৫টি তুলসী পাতা ফেলে সেই ভাপটা মুখে নিন ১০ মিনিট। এরপর ঠাণ্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে নিন। ব্রণ কমবে।

প্যাক

তুলসী পাতা, নিমপাতা, মুলতানি মাটি, চন্দন, লবঙ্গ ও সামান্য কর্পূর মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে সেটি মুখে ২০-২৫ মিনিট রাখার পর ধুয়ে ফেলুন।

স্বাভাবিক ত্বক

কাঁচা হলুদের পেস্ট, তুলসী পাতার রস ও বেসন মিলিয়ে মিশ্রণটি ১৫ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

তৈলাক্ত ত্বক

তুলসী পাতার রস এবং ঝিঙের রস একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগান। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানির ঝাপটা দিয়ে মুখটা ধুয়ে ফেলুন। তেলভাব কমবে এবং ত্বক ঝকঝকে হয়ে উঠবে।

মিশ্র ত্বক

এক চা চামচ কাঁচা হলুদ, দুই চা চামচ তুলসী পাতা, দুই চামচ পুদিনা পাতা একসঙ্গে পেস্ট করে এক চা চামচ জবের গুঁড়া মিশিয়ে মিশ্রণটি ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখুন। এরপর পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

ত্বকের দাগ দূর করতে

তুলসী পাতা ও বেসন একসঙ্গে পেস্ট করে ফেসপ্যাক বানিয়ে মুখে লাগান। মুখের কালো দাগ দূর হবে অথবা তুলসী পাতা মিহি করে গুঁড়া পাউডারের মতো ব্যবহার করতে পারেন।

হাত ও পায়ের কালো দাগ দূর করতে

তুলসী পাতার রস, দুধ, ময়দা, কাঁচা হলুদবাটা ও জাফরান মিশিয়ে মিশ্রণটি হাত ও পায়ে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে হালকাভাবে সার্কুলার মুভমেন্টে ঘষে ধুয়ে ফেলুন। দাগ কমে যাবে।

বলি রেখা দূর করতে

বয়স বাড়লে অনেক সময় চামড়া কুঁচকে যায়। এই সময় তুলসী পাতার রস-ডাবের পানি সমপরিমাণে মিশিয়ে মুখে ও গায়ে নিয়মিত লাগান, চামড়া টানটান থাকবে।

ত্বকের রুক্ষতা দূর করতে

ত্বককে সুরক্ষিত রাখতে তিলের তেলে তুলসী পাতা ভালো করে ফোটান, যতক্ষণ না তেলটা কালো হয়ে যাচ্ছে। ঠাণ্ডা হলে বোতলে ভরে রেখে দিন। শীতকালে ব্যবহার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*