তাজা খবর
প্রাকৃতিক উপায়ে রোদে পোড়া ত্বকের যত্ন নিন

প্রাকৃতিক উপায়ে রোদে পোড়া ত্বকের যত্ন নিন

সৌন্দর্য বর্ধনে ত্বক অনেক বেশি ভূমিকা পালন করে। ত্বক যদি শুষ্ক ও দাগমুক্ত না থাকে তবে কোনো উপায়েই নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাস ফিরে আসে না। ঘর থেকে বের হলেই সূর্যের আলো আর ধুলাবালিতে ত্বকের নানা রকম ক্ষতি হয়। মূলত এই কারণেই ত্বক শুষ্ক হয়, ব্রণ হয় এবং দাগ পরে যায়।

এক্ষেত্রে রাসায়নিক নানা উপাদানের ফেসিয়াল কিট ব্যবহার করার চেয়ে, প্রাকৃতিক উপায়ে রোদেপোড়া ত্বক থেকে রক্ষা পাবেন সহজেই। তাই জেনে নিন মুখের ত্বকে পুড়ে যাওয়া ট্যান প্রাকৃতিক উপায়ে ভালো করার উপায়।

অনেকেই ত্বকে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুতে পছন্দ করেন। তবে এটা ত্বকের কোষকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। বরং সব সময়ই ঠাণ্ডা পানিতে মুখ ধোয়া জরুরি। রোদের প্রভাবে ত্বকে ট্যান পড়লে, তখনো বরফ বা বরফের কুচি মুখে ঘষে নিলে ত্বকের ক্ষতি অনেকটা পুষিয়ে নেয়া যায়। এছাড়াও ব্যবহার করতে পারেন-

১. টমেটো সবজিটি প্রাকৃতিক ট্যান প্রতিরোধক। রোদ থেকে ফিরে টমাটো কেটে রোদে পোড়া অংশে ভাল করে মেখে নিন। কিছুক্ষণ রেখে শুকিয়ে গেলে বরফ পানিতে ধুয়ে নিন মুখ।

২. একচামচ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার এককাপ ঠাণ্ডা বরফ পানিতে মিশিয়ে নিন। এবার একটি পরিষ্কার সুতির কাপড় সেই পাত্রে ভিজিয়ে নিয়ে রোদে পোড়া অংশ ভাল করে মুছে নিন। রোদে লাল হয়ে যাওয়া ত্বক আরাম পাবে ও ধীরে ধীরে আগের অবস্থায় ফিরে আসবে আপনার ত্বক।

৩. মধু প্রাকৃতিকভাবেই অ্যান্টিসেপ্টিক ক্ষমতাসম্পন্ন। রোদেপোড়া ত্বকে মধু লাগিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন। ত্বক টানতে শুরু করলে বরফ পানিতে তা ধুয়ে নিন।

৪. অ্যালোভেরা মিশ্রিত পানি ও বরফের মিশ্রণে ত্বকের আরাম বোধ হয়। অ্যালোভেরা জেল ও পানি একসঙ্গে মিশিয়ে আইস কিউব তৈরি করে নিন। রোদে ত্বক পুড়ে গেলে সেই অংশে ধীরে ধীরে ঘষতে থাকুন। নিয়মিত এই অভ্যাসে ত্বকের রোদেপোড়া অংশ সারবে ধীরে ধীরে।

৫. ট্যান সরাতে কার্যকরী কালো চায়ের ব্যাগ। চা তৈরি হয়ে গেলে সেই ব্যাগ ফ্রিজে রাখুন। ঠাণ্ডা টি ব্যাগ চেপে চেপে লাগিয়ে নিন ত্বকের পুড়ে যাওয়া অংশে। ত্বকের জ্বালাপোড়া কমে নরম তো হবেই সঙ্গে ট্যানও সরবে দ্রুত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*