তাজা খবর

ফুলে ফুলে সুশোভিত মহাসড়ক

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুণ্ড ও মিরসরাই অংশে ৬৬ কিলোমিটার জুড়ে রাস্তার আইল্যান্ড লাল, হলুদ আর সাদা রংয়ের ফুলে ছেয়ে গেছে ।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক চার লেন করার পর সড়ক ও জনপথ বিভাগের উদ্যোগে ২০১৫ ও ২০১৬ সালে রোপণ করা হয়েছিল ৫৬ হাজার চারা।

প্রতি চার ফুট অন্তর অন্তর লাগানো রাধাচূড়া, হৈমন্ত, টগর, কুর্চি, কাঞ্চন ও সোনালু ফুলের গাছ পরিপূর্ণ ফুলে ফুলে। আর এসব ফুল ছড়াচ্ছে অপরূপ শোভা। ফুল গাছের পাশাপাশি সৌন্দর্য বাড়াচ্ছে নানা জাতের পাতাবাহারের গাছ।

সীতাকুণ্ড উপজেলার নুনাছড়া, পন্থিছিলা, বাশঁবাড়িয়া ও বাড়বকুণ্ড এলাকার সড়কে চোখে পড়ে নানান ফুল ও সৌন্দর্য বর্ধনকারী বৃক্ষরাজি। এই পথে চলাচলকারী যাত্রীরা যাত্রাপথে উপভোগ করছেন এই অকৃত্রিম সৌন্দর্য।

সড়ক ও জনপথ (সওজ) সূত্র জানায় তিনটি বিষয় মাথায় রেখে এখানে গাছ লাগানো হয়েছে। সৌন্দর্য বৃদ্ধি ছাড়াও একদিকে চলাচলকারী গাড়ির আলো অন্য লেনের গাড়ির চালকের চেখে না পড়ার উদ্দেশ্যে লাগানো হয়েছে অপেক্ষাকৃত ছোট জাতের ফুল ও পাতাবাহার গাছ। তাছাড়া এর ফলে আইল্যান্ড থাকবে দখলমুক্ত।

তবে পানির অভাব ও পর্যাপ্ত পরিচর্যার অভাবে অনেক গাছ মারা যাওয়াতে বেশ কিছু স্থানের গাছ নষ্ট হয়েছিল। চলতি বছর বর্ষার শুরুতে সেসব স্থানে নতুন করে চারা লাগানো হয়েছে বলে জানান সওজের চট্টগ্রাম বিভাগীয় নির্বাহী প্রকৌশলী জুলফিকার আহমেদ।

তিনি বলেন, সড়ক এখন শুধু যান চলাচলের কাজে ব্যবহার হবে না। এটা মানুষের সংস্কৃতি এবং কৃষ্টির একটা অংশ হয়ে গেছে।

মহাসড়কের আশপাশ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা ছাড়াও সড়কের সৌন্দর্য বর্ধনের নানান প্রকল্প অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*