তাজা খবর
আপনি কি ভিটামিনের অভাবে ভুগছেন? জেনে নিন এর লক্ষণ ও প্রতিকার

আপনি কি ভিটামিনের অভাবে ভুগছেন? জেনে নিন এর লক্ষণ ও প্রতিকার

ভিটামিন শরীরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নানা ধরণের ভিটামিন শরীরকে সুস্থ রাখতে ভূমিকা পালন করে। আর এই ভিটামিনের অভাব পূরণের জন্য আমরা নানান পুষ্টিকর খাবার খেয়ে থাকি। কিন্তু যখনই শরীরে ভিটামিনের অভাব হয় তখনই বিভিন্ন রোগ দেখা দেয়।

শরীরের ভিটামিনের ঘাটতি অনেকেই ঠিক বুঝতে পারেন না। তবে ছোট ছোট কিছু লক্ষণ আছে যা আমরা অবহেলা করে থাকি। সেগুলো শরীরে ভিটামিনের অভাব হয়েছে কিনা তা নির্দেশ করে থাকে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক সেই লক্ষণগুলো-

চুল পড়া
ভিটামিন কে, ই, ডি, এবং এ বিশেষত বায়োটিন (ভিটামিন বি৭) এর অভাবে চুল পড়তে পারে। এমনকি জিঙ্কের অভাবেও চুল পড়া শুরু হয়। অ্যাভোকাডো, কলা, মাশরুম, বাদাম ইত্যাদি প্রতিদিনকার ডায়েটে রাখুন।

সারা শরীরে ব্রণ হওয়া
ব্রণ হওয়া একটি সাধারণ সমস্যা। কিন্তু সারা শরীরে বা ঘন ঘন ব্রণ হওয়া ভিটামিন অভাবের লক্ষণ। মূলত এটি ভিটামিন ডি এবং ভিটামিন এ এর অভাবে এটি হয়ে থাকে। চর্বিযুক্ত খাবার খাওয়া কমিয়ে সবজি ফল গাজর, মিষ্টি আলু, বাদাম খাদ্যতালিকায় রাখুন।

ঠোঁট ফাটা
আপাতদৃষ্টিতে ঠোঁট ফাটা খুব সাধারণ মনে হলেও এটি ভিটামিনের অভাবে হয়ে থাকে। ভিটামিন বি, জিঙ্ক, আয়রনের অভাবে ঠোঁটের কোণ বা মাঝের অংশ ফেটে যায়। এর থেকে বাঁচতে ডিম, মাছ, বাদাম, বাঁধাকপি, ব্রকোলি ইত্যাদি খাবার খান।

ত্বকে র‍্যাশ হওয়া
মুখ বা ত্বকের অন্য স্থানে লাল লাল র‍্যাশ হওয়া। ভিটামিন এ, ডি, কে, ই এর অভাবে ত্বকে এইরকম অ্যালার্জি দেখা দেয়। স্যামন মাছ, ডিম, দুধ, মাশরুম, কলা, বাঁধাকপি অ্যাভোকাডো ইত্যাদি খাবার নিয়মিত খান। এই খাবারগুলো ভিটামিনের অভাব পূরণ করে ত্বকের র‍্যাশ দূর করে।

পেশী টান
অনেক সময় হাত পায়ে পেশী টান পড়ে থাকে। ভিটামিন বি, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম এবং পটাশিয়ামের অভাবে মূলত এটি হয়ে থাকে। পালং শাক, আপেল, মিষ্টি কুমড়ো, কলা আয়রন এবং ক্যালসিয়াম জাতীয় খাবার ডায়েট চার্টে রাখুন। ভিটামিনের অভাবকে তেমন গুরুত্ব দেয়া হয় না। অথচ বড় কোনো রোগের শুরু হয়ে থাকে ভিটামিনের অভাব থেকে। তাই ভিটামিনের অভাবকে অবহেলা করা উচিত নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*