তাজা খবর
রাঙ্গুনিয়া ও কাপ্তাইয়ের লোকালয়ে বন্য হাতির তাণ্ডব!

রাঙ্গুনিয়া ও কাপ্তাইয়ের লোকালয়ে বন্য হাতির তাণ্ডব!

খাদ্যের সন্ধানে প্রতিদিন রাঙ্গুনিয়া ও কাপ্তাইয়ের চন্দ্রঘোনা রাইখালী এলাকার লোকালয়ে হানা দিচ্ছে বন্য হাতির পাল। গত কয়েক দিনে ওই এলাকার ৮/১০ টি গ্রামে হাতির দল একাধিক কৃষকের খেত-খামারের হাজার হাজার টাকার সম্পদ নষ্ট করেছে। জঙ্গলে লুকিয়ে থাকা বন্য হাতি সাধারণ মানুষকেও আক্রমণ করছে বলে অভিযোগ করেছেন গ্রামবাসী।

গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাত দেড়টায় রাইখালীর ডংনালা গ্রামের নিজ বাসার সামনেই বন্য হাতির আক্রমণের শিকার হন রাইখালীর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. নাছির উদ্দিন (৪২)। এ সময় নাছির বন্য হাতির আক্রমণে মাথা, বুকে ও পিঠে গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হয়। স্থানীয়রা তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে চন্দ্রঘোনা ক্রিশ্চিয়ান হাসপাতালে ভর্তি করেন।

২৩ সেপ্টেম্বর রাতে ডংনালা এলাকার পল্লি চিকিৎসক রেমংপ্রু মারমা (৪০) রাতে বাড়ি ফেরার পথে সড়কের পাশে পার্শ্ববতী জঙ্গল হতে বন্য হাতির আক্রমণের শিকার হন। এ সময় তার চিৎকারে গ্রামের লোকজন ছুটে এসে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চন্দ্রঘোনা ক্রিশ্চিয়ান হাসপাতালে ভর্তি করে।

ডংনালা গ্রামের অংজাবাই মারমা বলেন, সন্ধ্যা নামলেই পাহাড় থেকে বন্য হাতির দল লোকালয়ে ছুটে আসছে। রাইখালী ডংনালা, তংসি পাড়া, হাতিমারা মুখপাড়া, খাসিভাঙ্গা, কোদালা, কারিগড়পাড়া, রাইখালীসহ একাধিক গ্রামে বন্য হাতির আক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিরাতে গ্রামের কৃষকদের কলা, জাম্বুরা, কচি বাঁশ কোঁড়ল, আদা, হলুদসহ বিভিন্ন কৃষিপণ্য নষ্ট করে ফেলছে হাতি। বন্য হাতির দল কয়েকটি দলে বিভক্ত হয়ে বাড়িঘরে হানা দিচ্ছে এবং মালামাল তছনছ করছে।

গ্রামবাসী জানায়, দলছুট একটি বন্য হাতি সরাসরি মানুষের ওপর হামলা চালাচ্ছে। বনজঙ্গলের পাশে অবস্থান নিয়ে রাতের আঁধারে সাধারণ মানুষের ওপর আক্রমণ করছে। গত এক বছরে রাইখালী এলাকায় বেপরোয়া বন্য হাতির আক্রমণে একাধিক মানুষ হতাহতের শিকার হয়েছেন। স্থানীয় বন বিভাগ সূত্র জানায়, রিজার্ভ এলাকা কমে যাওয়া এবং পাহাড়ে খাদ্যের সংকটের কারণে লোকালয়ে হানা দিচ্ছে বন্য হাতির দল।

রাইখালী ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. এনামুল হক বলেন, গত কয়েক দিনে বন্য হাতির দল বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। কৃষকের হাজার হাজার টাকার কৃষিপণ্য নষ্ট ও সাবাড় করে ফেলছে। রাতের আঁধারে সাধারণ মানুষের ওপর হামলা চালাচ্ছে। বন্য হাতির লোকালয়ে জানমালের ব্যাপক ক্ষতি সাধন করলেও বন বিভাগ কার্যকারী কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। সাধারণ মানুষের সম্পদ রক্ষায় বন বিভাগ তথা সরকারের দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন।

কাপ্তাই পাল্পউড বাগান বিভাগীয় কর্মকর্তা রুহুল আমিন জানান, কাপ্তাইয়ে বন্য হাতির উৎপাত দমনে বিভিন্ন বিটের কর্মীদের নির্দেশ দেয়া আছে। তবে লোকবল এবং প্রয়োজনীয় অস্ত্রশস্ত্রের অভাবে বন্য হাতির উৎপাত যথাযথ প্রতিরোধ সম্ভব হয়ে উঠছে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*