তাজা খবর
ঘুষের অভিযোগ পেয়ে কর্মকর্তার বিরুদ্ধে হাটহাজারীর  ইউএনও’র তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা

ঘুষের অভিযোগ পেয়ে কর্মকর্তার বিরুদ্ধে হাটহাজারীর  ইউএনও’র তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা

চট্টগ্রাম শহরে বসবাসকারী আদিল হাসান। জন্ম নিবন্ধনের তারিখ সংশোধনে গিয়েছিলেন হাটহাজারী উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে। কার্যালয়ের কর্মরত অফিস সহকারী বিশ্বজিৎ বড়ুয়ার নিকট জন্মনিবন্ধনের তারিখ সংশোধনের সহয়তা চান। উপজেলা সহকারী বিশ্বজিৎ প্রথমেই বলেন সংশোধন প্রক্রিয়া অনেক সময়সাপেক্ষ ও জটিল এবং সংশোধন নাও হতে পারে। তবে তাকে পাঁচ হাজার টাকা দিলে অল্প সময়ে জন্মনিবন্ধন সংশোধন করে দিতে পারবেন বলে জানান অভিযুক্ত এই অফিস সহকারী।

জন্মনিবন্ধনের সামান্য তথ্য সংশোধনে উক্ত কর্মকর্তার ৫ হাজার টাকা ঘুষ চাওয়ায় বিস্মিত হন কলেজ পড়ুয়া এই শিক্ষার্থী। স্মার্টফোনে গোপনে ধারণ করেন বিশ্বজিৎ বড়ুয়ার ঘুষ চাওয়ার ভিডিও। উপজেলা কার্যালয় হতে বেরিয়ে ফোন করেন হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রহুল আমিনকে। অভিযোগ পেয়ে মিনিট পাঁচেকের মধ্যেই হাজির ইউএনও রহুল আমিন। তাৎক্ষণিক নিজের অফিসে ডেকে আনেন ঘুষ চাওয়ায় অভিযুক্ত বিশ্বজিৎ বড়ুয়াকে। কার্যালয়ে অভিযোগকারীর সামনে ঘুষ চাওয়ার বিষয়টি প্রমাণিত হলে ঐ অফিস সহকারীকে তাৎক্ষণিক পদচ্যুত করেন এবং কার্যালয়ে সকল কর্মকান্ড থেকে বিরত থাকার নির্দেশ প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানিয়েছেন হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রহুল আমিন।

অভিযোগকারী আদিল হাসান জানান, “জন্মনিবন্ধনের জন্ম তারিখে ভুল থাকায়, সংশোধনের জন্য হাটহাজারী উপজেলা কার্যালয়ে গিয়েছিলাম। সকল বৈধ কাগজপত্র দিয়ে জন্মনিবন্ধন সংশোধনের জন্য অফিস সহকারীকে জানালে তিনি আমার কাছে বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে ৫ হাজার টাকা দাবি করেন। সরকারী সেবা নিতে ঘুষ চাওয়ার বিষয়টি অনৈতিক বলে মনে হওয়ার, তার ঘুষ চাওয়া ভিডিওটি ধারণ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করি। ইউএনও মহোদয় অভিযোগের সত্যতা প্রমাণ পেয়ে উক্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নিয়েছেন।”

বিষয়টি সম্পর্কে হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রহুল আমিন জানান, সরকারী সেবার বিনিময়ে টাকা চাওয়া সম্পূর্ণ অনৈতিক। ঘুষ চাওয়ার অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথেই অভিযুক্ত কর্মকর্তাকে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসাবে তাৎক্ষণিক পদচ্যুত করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তি নেয়া হচ্ছে।

এছাড়া আদিলের মত তরুণদের ঘুষের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে তাকে মুগ্ধ করেছে বলে তার ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে জানান ইউ.এন.ও রহুল আমিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*