তাজা খবর
যে উপায়ে তিন মাস পর্যন্ত পেঁয়াজ-রসুন ভালো রাখবেন

যে উপায়ে তিন মাস পর্যন্ত পেঁয়াজ-রসুন ভালো রাখবেন

প্রতিদিনের রান্নায় সব থেকে প্রয়োজনীয় উপকরণ হচ্ছে পেয়াজ-রসুন। কিন্তু বাজারের সব সময় এসব পণ্যের মূল্য এক থাকে না। অথবা সময়ের অভাবে পেঁয়াজ-রসুন অনেকেই একসঙ্গে বেশি করে কিনে ফেলেন।

তবে সমস্যা হয় এর সংরক্ষণ নিয়ে। সথিকভাবে সংরক্ষণ না করতে পারায় সেগুলো দ্রুতই নষ্ট হয়ে যায়। তবে একটি পদ্ধতিতে সহজেই তিন মাস পর্যন্ত পেঁয়াজ ও রসুন ভালো রাখা সম্ভব। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক সেই সহজ উপায়টি-

যা যা লাগবে
ভালো মানের রসুন ও পেঁয়াজ, কাগজ ছিদ্র করার যন্ত্র, বাদামি রঙের কাগজের ব্যাগ, ক্লিপ অথবা দড়ি।

যেভাবে করবেন
> প্রথমে পুরো কাগজের ব্যাগ ছিদ্র করে নিন। একটু ফাঁকা রেখে ছিদ্র করুন। কাগজের ব্যাগটি ভাঁজ করে এরপর যন্ত্র দিয়ে ছিদ্র করুন। এতে সমানভাবে ছিদ্র হবে। আর দুটো ছিদ্রের জায়গাও থাকবে। তা না হলে দুটো ছিদ্র পর পর হয়ে গেলে বড় ছিদ্র হয়ে যেতে পারে। দুটি ছিদ্রের মধ্যে এক ইঞ্চি পরিমাণ ফাঁকা থাকলেই হবে। এই ছিদ্র ব্যাগের মধ্যে বাতাস প্রবেশ করতে সাহায্য করবে।

> এবার এই ব্যাগের মধ্যে পেঁয়াজ ও রসুন রাখুন। অর্ধেকটা ভরে রাখুন। এরপর ব্যাগের মুখটা ভাঁজ করে ক্লিপ অথবা দড়ি দিয়ে ভালো করে বেঁধে নিন। ব্যাগটি রুমের তাপমাত্রায় এমন জায়গায় রাখুন, যাতে ব্যাগের ভেতরে বাতাস প্রবেশ করতে পারে।

> এভাবে প্রায় তিন মাস পর্যন্ত পেঁয়াজ ও রসুন ভালো থাকবে। সঠিক উপায়ে সংরক্ষণ করলে এর স্বাদ নতুনের মতো থাকবে এবং পচে যাবে না।

ফাইল ছবি

লক্ষণীয়
* পেঁয়াজ ও রসুন অন্ধকার, ঠান্ডা (ফ্রিজ নয়) এবং শুকনো জায়গায় বেশি ভালো থাকে।

* ৬৫ থেকে ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় রেখে দিলে তিন মাসের বেশি সময় পেঁয়াজ ও রসুন ভালো থাকবে।

* ঠান্ডা, অন্ধকার বেইজমেন্টেও এগুলো অনেক দিন ভালো থাকে।

* পেঁয়াজ কখনোই বেশিদিন ফ্রিজে রাখবেন না। এতে পেঁয়াজের স্বাদ এবং কার্যকারিতা নষ্ট হয়ে যায়।

* প্লাস্টিকের ব্যাগে কখনোই পেঁয়াজ ও রসুন রাখবেন না। বাতাস প্রবেশ না করার কারণে এগুলো পচে যেতে পারে।

* আলুর সঙ্গে পেঁয়াজ রাখবেন না। এতে দুটোই অনেক দ্রুত নষ্ট হয়ে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*