তাজা খবর
সেন্ট মার্টিন দ্বীপে আটকে পড়া পর্যটকেরা টেকনাফ ফিরেছেন

সেন্ট মার্টিন দ্বীপে আটকে পড়া পর্যটকেরা টেকনাফ ফিরেছেন

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে কক্সবাজারের সেন্ট মার্টিন দ্বীপে আটকে পড়া পর্যটকেরা টেকনাফে ফিরেছেন। আজ সোমবার বিকেল ৪টা ৪০ মিনিটের দিকে তিনটি জাহাজে করে নিরাপদে তারা টেকনাফের দমদমিয়া নৌবন্দর ঘাটে এসে পৌঁছান।

এ সময় পর্যটকদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাইফুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবুল মনসুর ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) টেকনাফ অংশের সমন্বয়ক আমজাদ হোসেন।

আটকে পড়া পর্যটকদের কাছ থেকে যেন ভাড়া কম নেওয়া হয়, সে ব্যবস্থা করেন ইউএনও। হোটেল-কটেজের ভাড়া ও খাবারের দাম অর্ধেক রাখায় প্রশাসনকে ধন্যবাদ দেন পর্যটকেরা।

এর আগে টেকনাফ উপজেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় আজ সকাল সাড়ে ১০টায় টেকনাফের দমদমিয়া নৌবন্দর থেকে জাহাজ তিনটি সেন্ট মার্টিনের উদ্দেশে রওনা হয়। এমভি ফারহান, কেয়ারি ক্রুজ অ্যান্ড ডাইন, আটলান্টিক ক্রুজ—এই তিনটি জাহাজে করে সেন্ট মার্টিনে ফেরেন পর্যটকেরা।

বিআইডব্লিউটিএ টেকনাফ সূত্র জানায়, গত বৃহস্পতিবার সকালে টেকনাফের হ্নীলার দমদমিয়া নদীবন্দরের জেটিঘাট থেকে চারটি জাহাজে করে ১ হাজার ১৯১ জন পর্যটক সেন্ট মার্টিনে যান। এ ছাড়া ট্রলার ও স্পিডবোটে আরও দুই শতাধিক পর্যটক সেখানে যান। পরে বিকেলে প্রায় ৬০০ পর্যটক টেকনাফে ফেরত এলেও ৬০০ পর্যটক সেখানে থেকে যান। এ ছাড়া গত বুধবার রাত যাপনের জন্য থেকে যাওয়া প্রায় ৪০০ জনসহ সেন্ট মার্টিনে আটকা পড়েন প্রায় ১ হাজার ২০০ পর্যটক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*