তাজা খবর
কাতারের মর্গ থেকে ফিরছে চট্টগ্রামের গিয়াসের লাশ

কাতারের মর্গ থেকে ফিরছে চট্টগ্রামের গিয়াসের লাশ

একমাস ধরে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতারের মর্গে পড়ে ছিল চট্টগ্রামের ছেলে গিয়াস উদ্দিনের মরদেহ। কাতারে ঘনিষ্ঠ কেউ ছিল না এই যুবকের। প্রবাসীদেরও কেউ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এগিয়ে আসেনি। লাশ ফিরিয়ে আনার সামর্থ্য ছিল না তার পরিবারেরও। ফলে দিনের পর দিন অন্ধকার মর্গেই পড়ে থাকে যুবকের লাশ। গত ১৮ অক্টোবর কাতারে হৃদরোগে মারা যান তিনি।

শেষপর্যন্ত কাতারপ্রবাসী এক বাংলাদেশি এগিয়ে এলেন মহানুভবতার পরিচয় দিয়ে। ওই প্রবাসীর প্রচেষ্টায় মায়ের কোলে ফিরছে গিয়াস উদ্দিনের লাশ। শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) রাতে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট লাশটি নিয়ে বাংলাদেশে ফিরবে বলে আশা করা হচ্ছে।

গিয়াস উদ্দিন (৩৬) চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার পুটিবিলা এম চর হাটের গোরস্তান ওয়ার্ডের বাসিন্দা ছিলেন। তার বাবার নাম আব্দুল মালিক। মাত্র দুই বছর আগে বিয়ে করেছিলেন গিয়াস। বাবা-মা ও স্ত্রীকে নিয়ে তার পরিবার। ভাগ্য ফেরানোর স্বপ্ন নিয়ে গিয়েছিলেন কাতারে।

লাশ বিমানে উঠানোর আগে শুক্রবার আসরের নামাজের পর কাতারের রাজধানী দোহার হামাদ হাসপাতাল প্রাঙ্গণে গিয়াস উদ্দিনের জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।

জানা গেছে, কাতারের মর্গে বাংলাদেশি যুবকের লাশ পড়ে থাকার খবর পেয়ে এগিয়ে আসেন কাতারে একটি প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত সিলেটের ছেলে সাদ হোসেন। একাই তিনি হাসপাতাল, দূতাবাস, জনশক্তি মন্ত্রণালয়, ইমিগ্রেশন ও বিমান অফিসের সব রকম প্রক্রিয়া সামাল দেন। মরদেহ দেশে পাঠানোর যাবতীয় খরচও তিনিই যোগান দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*