তাজা খবর
যুক্তরাজ্যের পোর্টসমাউথের সিস্টার সিটি চট্টগ্রাম

যুক্তরাজ্যের পোর্টসমাউথের সিস্টার সিটি চট্টগ্রাম

অবস্থানগত সাদৃশ্যের জন্য চট্টগ্রামকে যুক্তরাজ্যের পোর্টসমাউথের সিস্টার সিটি আখ্যা দিয়েছেন ইউকে ট্রেড, ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড এডুকেশন মিশন প্রতিনিধিদলের নেতা রাজা আলী।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) নগরের আগ্রাবাদে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের বঙ্গবন্ধু কনফারেন্স হলে ১৮ সদস্যের ইউকে প্রতিনিধি দলের সঙ্গে চট্টগ্রাম চেম্বারের পরিচালক ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় রাজা আলী এ আখ্যা দেন।

তিনি বলেন, বিশ্বে বাংলাদেশ আজ দ্রুত বর্ধনশীল টাইগার অর্থনীতি হিসেবে পরিচিতি পাচ্ছে। বাংলাদেশে ব্যবসা ও বিনিয়োগে যুক্তরাজ্যের উদ্যোক্তাদের আগ্রহ রয়েছে।

তিনি দ্বিপাক্ষিক অধিকতর সম্পর্কোন্নয়নে চট্টগ্রাম চেম্বারের সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারক সম্পাদনের কথা জানান।

চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে গভীর ও চমৎকার ব্যবসায়িক সম্পর্ক উল্লেখ করে বলেন, দুই দেশের সম্ভাবনাগুলো কাজে লাগিয়ে দ্বিপাক্ষিক ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগ অধিকতর বৃদ্ধি করা সম্ভব।

তিনি চট্টগ্রাম ও পোর্টসমাউথের মধ্যে শত বছরের ব্যবসায়িক ইতিহাস ও ঐতিহ্যগত সম্পর্ক রয়েছে বলে মন্তব্য করে দুই সিটির মধ্যে আগামী দিনগুলোতে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

চেম্বার সভাপতি যুক্তরাজ্যের শিক্ষা, জাহাজ তৈরি, প্লাস্টিক, শিপিং, ক্যাটারিং, কনসালটেন্সি, মেরিটাইম, ট্যুরিজম, আইটি, ফার্নিচার, প্যাকেজিং, কৃষি, ফিশারিজ খাতের উন্নত ও সমৃদ্ধতার প্রশংসা করে বাংলাদেশের এসব খাতে ব্রিটিশ কারিগরি ও বিনিয়োগ প্রত্যাশা করেন।

মাহবুবুল আলম চিটাগাং চেম্বার কর্তৃক প্রস্তাবিত বাংলাদেশ সেন্টার অব এক্সিলেন্স গঠনে প্রতিনিধিদলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

সভায় বক্তব্য দেন চেম্বার পরিচালক এসএম আবু তৈয়ব, সাবেক পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ, বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটির (বিডা) পরিচালক মোহাম্মদ ইয়াছিন, ইস্ট ডেল্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ সিকান্দার খান, জাপানের অনারারি কনস্যুল জেনারেল মো. নুরুল ইসলাম, উইম্যান চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবিদা মোস্তফা, চিটাগাং ক্লাব লিমিটেডের সাবেক চেয়ারম্যান মিয়া আবদুর রহিম, জেএফ বাংলাদেশের সিইও একিউআই চৌধুরী, শানশাইন কলেজের প্রিন্সিপাল গাজী সাফিয়া রহমান ও লিটল জুয়েলস স্কুল প্রিন্সিপাল দিলরুবা আহমেদ।

উপস্থিত ছিলেন সলেন্ট লোকাল এন্টারপ্রাইজ পার্টনারশিপের (এলইপি) জেমস ফোর্ড, চেম্বার পরিচালক সৈয়দ জামাল আহমেদ, একেএম আক্তার হোসেন, মো. অহীদ সিরাজ চৌধুরী (স্বপন), অঞ্জন শেখর দাশ, বেনজির চৌধুরী নিশান, সাকিফ আহমেদ সালাম, শাহজাদা মো. ফৌজুল আলেফ খান, দক্ষিণ আফ্রিকার অনারারি কনসাল মো. সোলায়মান আলম শেঠ, উইম্যান চেম্বারের সহ-সভাপতি ডা. মুনাল মাহবুব ও পরিচালক লুৎমিলা ফরিদ, প্রান্তিক গ্রুপের এমডি ইঞ্জিনিয়ার গোলাম সরওয়ার প্রমুখ।

তথ্যচিত্র উপস্থাপন করেন পোর্টসমাউথ সিটি কাউন্সিলের ইকনোমিক গ্রোথ ম্যানেজার মার্ক পেমব্লেটন।

ধন্যবাদ জ্ঞাপনসূচক বক্তব্য রাখেন মিশন কো-অর্ডিনেটর মাহবুব নুর (ম্যাবস)। আলোচনা শেষে প্রতিনিধি দল বিটুবি মিটিং এ অংশগ্রহণ করেন এবং ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের পারমানেন্ট এক্সিবিশন হল পরিদর্শন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*