তাজা খবর
শীতে ধুলাবালিতে কাবু নয়

শীতে ধুলাবালিতে কাবু নয়

গ্রীষ্ম ও বর্ষায় বাতাস বেশি থাকায় ধূলিকণা অনেক কম থাকে। কিন্তু শীতকালে ধূলিকণা বেড়ে যায়। এর সঙ্গে বাড়ে বায়ু দূষণও। চারপাশে উড়তে থাকা এসব ধুলোবালির জন্য প্রতিনিয়ত আমাদের শ্বাসনালি ও ফুসফুস ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তাই এ সময় ধুলোবালি থেকে বাঁচতে হলে কিছু সচেতনতা প্রয়োজন। চলুন জেনে নিই কীভাবে ধুলোবালি থেকে মুক্তি পেতে পারি-

শীতের সময় বড়দের তুলনায় শিশুরা অনেক বেশি রোগে ভোগে। কারণ শিশুদের উচ্চতা কম থাকায় মাটির খুব কাছাকাছি থাকে এবং ধুলো শ্বাসনালিতে ঢুকে পড়ে। যদিও ময়লা ঢুকলে তা পরিষ্কার করার জন্য শ্বাসনালির নিজস্ব ব্যবস্থা আছে। কিন্তু এর ময়লার পরিমাণ বেশি হয়ে গেলে প্রতিরোধ ব্যবস্থা ব্যাহত হয়।

যদি সালফার-ডাই-অক্সাইড, কার্বন-মনো-অক্সাইডের মতো গ্যাস শ্বাসনালিতে বেশি পরিমাণে ঢুকে যায়, তখন শ্বাসনালি উত্তেজিত হয় এবং মিউকাসের পরিমাণ বেড়ে শরীরে সংক্রমণ হয়। এ সমস্যা থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য ভালো মানের মাস্ক ব্যবহার করা যেতে পারে।

এছাড়া পানি গরম করে তার বাষ্প নাক দিয়ে নেওয়াও খুব ভালো ফলাফল দেয়। আজকাল বাজারে খুব ভালো মানের ইনহিলেশনও পাওয়া যায়। একটি মাঝারি আকারের মুখওয়ালা পাত্রে গরম পানি নিয়ে তোয়ালে বা মোটা কাপড় দিয়ে মুখ ঢেকে নাক দিয়ে পানি টানা যেতে পারে। এতে অনেক উপকার হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*