তাজা খবর
বিশ্বজয়ের স্বপ্ন চবি’র শিক্ষার্থী তোরসার

বিশ্বজয়ের স্বপ্ন চবি’র শিক্ষার্থী তোরসার

রাফাহ নানজিবা তোরসা। মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ-২০১৯ নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই বেশ পরিচিত নাম এটি। বর্তমানে তিনি দেশ ছেড়ে বিদেশে পাড়ি জমিয়েছেন মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতা-২০১৯’ এ বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্বের জন্য। গত ২০ই নভেম্বর ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে লন্ডনের উদ্দেশ্যে দেশ ত্যাগ করেন রাফাহ নানজিবা তোরসা।

মিস ওয়ার্ল্ড-২০১৯ প্রতিযোগিতায় এবারের আসরে ১১৯টি দেশের প্রতিযোগির সঙ্গে রয়েছেন বাংলাদেশের তোরসা। প্রতিযোগিতার বেশকিছু রাউন্ড পেরোনোর পর আগামী ১৫ই ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ৬৯তম মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব (গালা রাউন্ড)। এরপরেই জানা যাবে, কে হচ্ছেন এবারের ‘মিস ওয়ার্ল্ড’।

এর আগে প্রত্যেক দেশের প্রতিযোগিকে অংশ নিতে হবে বিভিন্ন রাউন্ডে। প্রাথমিক দুটি ইভেন্ট হলো; হেড টু হেড ও বিউটি উইথ এ পারপাস। এরপরেই প্রথম ধাপে রয়েছে – বীচ বিউটি, টপ মডেল, ট্যালেন্ট অডিশন ও স্পোর্টস চ্যালেঞ্জ পর্ব।

মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ-২০১৯’ বিজয়ী রাফাহ নানজিবা তোরসার ‘বিউটি উইথ এ পারপাস’ হলো ‘এডুকেশন ফর হোপ’। তিনি ইতোমধ্যে ট্যালেন্ট অডিশন এবং টপ মডেল অডিশনে অংশগ্রহণ করেছেন। তবে এখনো এই পর্বের ফলাফল প্রকাশ হয়নি। এই পর্বগুলো পার হতে পারলেই সরাসরি সেমিফাইনালে যাবেন তিনি।

মূলত ‘বিউটি উইথ এ পারপাস’ এর মাধ্যমে মিস ওয়ার্ল্ড অরগানাইজেশন বিভিন্ন ধরণের চ্যারিটি ওয়ার্ক সম্পন্ন করে থাকে। যা মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় ১৯৭২ সালে সংযুক্ত করা হয়।

১১ বছর বয়স থেকে রাফাহ নানজিবা তোরসা লায়ন্স (বিশ্বের মানবসেবা প্রিয় ব্যক্তিদের একটি সংগঠন) ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশনের অধীনে লিওইজমের সঙ্গে যুক্ত থেকে এখন পর্যন্ত ১২টি প্রোজেক্টে অংশগ্রহণ করেছেন। পাশাপাশি তিনি চ্যারিটির উদ্দেশ্যেই মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের কথা জানিয়েছেন। এই প্রতিযোগিতায় জেতার জন্য বাংলাদেশের মানুষের ভোট এবং সমর্থন চেয়েছেন তিনি।

মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ রাফাহ নানজিবা তোরসা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনটি ভোটিং পদ্ধতি রাখা হয়েছে। প্রথমত মোবস্টার অ্যাপসের মাধ্যমে মিস বাংলাদেশকে ভোট দেয়া যাবে। দ্বিতীয়ত ইনস্টাগ্রাম এবং তৃতীয়ত মিস ওয়ার্ল্ড রাফাহ নানজিবা তোরসা পেজটিতে সবার সক্রিয় অংশগ্রহণ এবং লাইক কমেন্ট ও ফলোয়িংয়ের মাধ্যমে তোরসার জন্য ভোট করা যাবে। এবং www.missworld.com ওয়েবসাইটে গিয়ে একটি আইডি খুলতে হবে। এবং কন্টেস্ট্যান্ট বা প্রতিযোগী অপশনে বাংলাদেশে ভোট দিতে পারবেন যে-কেউ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিযোগিদের জনপ্রিয়তা দেখা হয়। এক্ষেত্রে প্রতিযোগিদের ফলোয়ার, ভিউয়ার্স, লাইক, কমেন্ট এসব বিবেচনা করেই বিচারকরা তার এই উদ্যোগের সঙ্গে মানুষের সম্পৃক্ততা ও সমর্থন যাচাই করেন।

এর আগে গত ১১ই অক্টোবর ৩৭ হাজার প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ-২০১৯’ নির্বাচিত হয়েছিলেন তোরসা।

চট্টগ্রামে বসবাসকারী তোরসার গ্রামের বাড়ি কক্সবাজার জেলার কুতুবদিয়া উপজেলায়। ছোটবেলা থেকেই নানান প্রতিভার অধিকারী তোরসার পারদর্শিতা রয়েছে- নৃত্য, আবৃত্তি, বিতর্ক, থিয়েটার, মডেলিং এবং মূকাভিনয়ে।

বর্তমানে তিনি আবৃত্তি সংগঠন ‘নরেন’ এবং থিয়েটার সংগঠন ‘ফেইম’ এর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। এছাড়া নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছেন সামাজিক সংগঠন লিও ক্লাব এবং রেডক্রিসেন্টের সদস্য হিসেবে। পাশাপাশি বিজয় টেলিভিশন শো’র সঞ্চালনা ও রেডিওতে কাজ করছেন তিনি। এছাড়া ২০১৭ সালে তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘হালদা’ ছবিতেও একটি চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি।

চট্টগ্রাম ক্যান্ট. পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে উত্তীর্ণ হওয়া তোরসা বর্তমানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক (আই আর) বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষে পড়ছেন।

রাফাহ নানজিবা তোরসা বলেন, শুরু থেকেই সহপাঠী বন্ধু বান্ধব এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনেক সাপোর্ট এবং উৎসাহ পেয়েছি। আমার বিশ্বাস চট্টগ্রামের মানুষ এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোট পেলে আর কিছুই লাগবে না। সবাইকে ছাড়িয়ে বাংলাদেশের মানুষের আমার কাছে যেই প্রত্যাশা সেটা আমি পূরণ করতে পারবো।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ যেভাবে মিস ওয়ার্ল্ড এবং মিস বাংলাদেশকে সাপোর্ট করে আসছে, আমি চাই সমগ্র বিশ্বের মানুষ সেটা জানুক। সোশ্যাল মিডিয়াসহ যেই চারটি পদ্ধতিতে আমাকে ভোট দেয়ার সুযোগ রয়েছে; এতে সবার অংশগ্রহণ ও আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*