তাজা খবর
ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে চট্টগ্রামে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে চট্টগ্রামে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

রাজধানী ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে চট্টগ্রামে সাধারণ শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করেছেন।

শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) বিকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে সাধারণ শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

নির্বাচন কমিশন ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে আগামী ৩০ জানুয়ারি। ওই দিন সরস্বতী পূজা থাকায় নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে রাজধানী ঢাকাতে আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা।

চট্টগ্রামে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক এবং আন্দরকিল্লা ওয়ার্ড কাউন্সিলর জহুর লাল হাজারী, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগরের সিনিয়র সদস্য বিকাশ দাশ।

কাউন্সিলর জহুর লাল হাজারী বলেন, ১৯৭২ সালের সংবিধানে যে চারটি প্রধান মূল ভিত্তি তার মধ্যে একটি ধর্ম নিরপেক্ষতা। ১৯৭৭ সালে জিয়াউর রহমান সংবিধান থেকে ধর্ম নিরপেক্ষতা সরিয়ে ফেলেন। ২০১০ সালে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ আদালত ধর্ম নিরপেক্ষতাকে সংবিধানের একটি মূল মতবাদ হিসেবে পুনঃস্থাপন করেন। এতে করে এই রাষ্ট্রে ধর্ম চর্চা হচ্ছে ব্যক্তির স্বাধীনতা এবং সকল ধর্মের সমান অধিকার সংবিধান নিশ্চিত করেছে। কিন্তু নির্বাচন কমিশন সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান হওয়া সত্বেও নির্বাচনের তারিখ নিয়ে যে ত্রুটি করেছে তার সমাধান নির্বাচন কমিশনকেই করতে হবে।

মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি বলেন, বাংলাদেশ একটি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে নির্বাচন কমিশনের সচিব গতকাল জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ২৭টি প্রতিষ্ঠানে এবং দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে মাত্র ২৬ প্রতিষ্ঠানে পূজা হয়। যা মোট কেন্দ্রের ২.১৫ শতাংশ। এটি একটি সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করে বলে আমরা মনে করি। নির্বাচন কমিশনকে এমন মন্তব্য প্রত্যাহার করে নির্বাচনের তারিখ পুনরায় ঘোষণা করার দাবি জানান রনি।

ডা. পায়েল দত্তের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন ইবনে মিজান রুবেল, শাহাদাত আলম শাওন, শান্তনু দেওয়ানজী, সৈকত বিশ্বাস, লক্ষন দাশ, অন্তর দাশ, ইসমাইল হোসেন, বিশ্বজিৎ শর্মা, লিটন দেবনাথ, রিকু আইচ,মো. কুতুব উদ্দিন, ধ্রুব ভট্টাচার্য্য, সাজ্জাদুল ইসলাম সোহাগ, রিমন দাশ, রিপন কান্তি দাশ, হৃদয় চক্রবর্তী, মো. ইমরান, নোবেল দাশগুপ্ত, শিবু সেন, সজীব দাশ,মোঃ আরিফুল ইসলাম, মো. বোরহান উদ্দিন, মীর মোহাম্মদ রবি, মিঠুন সরকার, মো. আবদুল মান্নান, রিয়েল খান, শুভ্রদেব বর্মন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*