তাজা খবর
যেসব প্রসাধনীর প্রধান উপাদান গাঁজা!

যেসব প্রসাধনীর প্রধান উপাদান গাঁজা!

রূপসজ্জায় বিভিন্ন প্রসাধনীর ব্যবহার কম বেশি সবাই করে থাকেন। এসব প্রসাধনী তৈরি করতে নানা রকম উপাদানের প্রয়োজন হয়। যা ত্বকের উজ্জ্বলতাও বাড়াতে সহায়তা করে।

তবে জানলে অবাক হবেন, এমন কিছু প্রসাধনী আছে যেগুলোর প্রধান উপাদান হচ্ছে গাঁজা। আর এই ট্রেন্ড চলছে পাশ্চাত্যে। ট্রেন্ডটির নাম হলো সিবিডি অয়েল ট্রেন্ড। সিবিডি অয়েল হলো গাঁজা থেকে আহরিত এক ধরনের উপাদান।

পাশ্চাত্যে সিবিডি অয়েল চায়ের সঙ্গে মিশিয়ে পান করছে। তাছাড়া ত্বকে মাখা সহ এই তেল দিয়ে তৈরি চকলেটও খাওয়া হচ্ছে। এখন তারা বাজারে নিয়ে এলো গাঁজা থেকে তৈরি প্রসাধনী।

যদিও সবার জানা, গাঁজা খেয়ে মানুষ ঘোরের মাঝে চলে যায়। এর কারণ হচ্ছে গাঁজাতে থাকা টিএইচসি বা টেট্রাহাইড্রোক্যানাবিনল নামক উপাদান। অন্য দিকে, সিবিডি বা ক্যানাবিডিয়ল হলো গাঁজা থেকে আহরিত এমন এক উপাদান যা আমাদের মানসিক অবস্থার ওপর কোনো প্রভাব ফেলে না। কারণ সিবিডি অয়েলের মধ্যে টিএইচসি থাকে না। সিবিডিযুক্ত পণ্য পান করলে বা খেলে গাঁজার ঘোর আসবে না। এ কারণে রাসায়নিক হিসেবে সিবিডি আসলে পাশ্চাত্যের দেশগুলোতে বৈধ। গাঁজা থেকে ঘানির মাধ্যমে হেম্প অয়েলও অনেক সময়ে আহরণ করা হয় ও তা দিয়ে পণ্য তৈরি করা হয়।

সিবিডি অয়েল ও হেম্প অয়েলের পার্থক্য হলো, সিবিডির অনেক স্বাস্থ্য সুবিধা আছে যেমন, ঘুমাতে সাহায্য করা, অ্যাংজাইটি কমানো, ত্বকের প্রদাহ কমানো। অন্যদিকে হেম্প অয়েলে আছে কিছু পুষ্টি যেমন ওমেগা ফ্যাটি এসিড, লিনোলিক এসিড ও ভিটামিন ই।

হেম্প অয়েলের সঙ্গে আমাদের ত্বকের প্রাকৃতিক তেলের অনেক মিল আছে। এ কারণে তা ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ব্যবহার করা যায়। তা শুষ্ক ও ক্লান্ত ত্বকের জন্যও ভালো। এমনকি যাদের ত্বক স্পর্শকাতর তারা এটা ব্যবহার করতে পারেন।

বিভিন্ন বিউটি ব্র্যান্ড এ ধরনের পণ্য উৎপাদন শুরু করেছে ইতোমধ্যেই। সেফোরা ব্র্যান্ডের রয়েছে হেম্প সিড ফেসিয়াল অয়েল ও সিবিডি বডি লোশন। এগুলোতে টিএইচসি থাকে না বলে তা ব্যবহার নিরাপদ। এছাড়াও রয়েছে সিবিডি ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম, ফেস প্যাক, লিপ বাম ও মাসকারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*