তাজা খবর
চুমু খাওয়ার দিন আজ

চুমু খাওয়ার দিন আজ

আজ ( ১৩ ফেব্রুয়ারি), ভালোবাসা দিবসের মধ্য দিয়ে শুরু হয়ে গেল কিস ডে। অর্থাৎ চুমু খাওয়ার দিন। প্রাচীনকাল থেকে ভালোবাসার গভীরতা চুম্বনের মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়ে থাকে। চুমু হলো ভালোবাসা প্রকাশের সবচেয়ে শক্তিশালী ভাষা।

বিভিন্ন গবেষণায়ও প্রমানিত হয়েছে- শুধু মানসিক বিষয়ই নয়, ব্যাপক মাত্রায় শারীরিক বিষয়ের সঙ্গে জড়িত চুমু। জেনে নিন চুমুর উপকারিতা-

* চুম্বনে মানসিক চাপ কমে যায় অনেকখানি, এমনটাই বলছে বিজ্ঞানীরা। শারীরিক অনুশীলন করার মতোই চুমু শরীরে ‘‌হ্যাপি হরমোন’‌ নিঃসরণ করে। এ সেই হরমোন, যা আপনাকে অতিরিক্ত খাওয়ার প্রবৃত্তি কমিয়ে দেয়।

* চুমু মানুষের চেহারায় তারুণ্য ভাব বজায় রাখে। যদিও এর কারণে কিছু ক্যালোরি ক্ষয় হয় তারপরও এটি মানুষের শরীরের জন্য খুব উপকারি।

* যারা নিয়মিত চুমু খান, তাদের অনিদ্রার সমস্যা হয় না।

* চুমু খাওয়ার ফলে শরীরের অক্সিটোসিনের মাত্রা বেড়ে যায়। এতে স্নায়ু শান্ত হয়।

* যৌন মিলন যে স্বামী-স্ত্রীকে শারীরিক আনন্দ দেয় এটি নতুন করে বলার কোনো প্রয়োজন পড়ে না। তবে চুমু তাদের আনন্দকে আরো বাড়িয়ে দেয়।

* ‌নিয়মিত চুম্বন দাঁতের ক্ষয়রোধ করে।

* চুমু খাওয়ার সময় হৃৎপিণ্ড অধিক সক্রিয় হয়ে ওঠায় ব্যায়ামও হয়। ফলে রক্তচাপ ও রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*