তাজা খবর
গলায় মালা পরিয়ে দীপুকে বরণ, হলো মিষ্টিমুখ

গলায় মালা পরিয়ে দীপুকে বরণ, হলো মিষ্টিমুখ

বিশ্বকাপজয়ী বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯ দলের খেলোয়াড় শাহাদাত হোসেন দীপু সিক্ত হয়েছেন এলাকার মানুষের ভালোবাসায়। কেউ গলায় পরিয়ে দিয়েছেন ফুলের মালা, কেউবা খাইয়ে দিয়েছেন মিষ্টি।

বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নগরের শুলকবহর এলাকার বাসায় ফেরার সময় এলাকায় এ দৃশ্যের অবতারণা হয়।

পটিয়ার হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নের চরকানাই গ্রামে বাড়ি হলেও বাবার চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চাকরির সুবাদে তাদের পুরো পরিবার ১৯৮৩ সাল থেকে আছেন নগরের শুলকবহর এলাকায়।

সেখানে উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে প্রতিক্রিয়ায় দীপু বলেন, আমাদের সবার লক্ষ্য ছিল চ্যাম্পিয়ন হবো। গত দুই বছর ধরে ভালো খেলছিলাম। আমরা ইংল্যান্ড গেলাম, নিউজিল্যান্ডে গেলাম। এশিয়া কাপে ফাইনাল খেলেছি। সেই ফাইনালে ৫ রানে হেরে যাওয়ার পর পরের ম্যাচে জয়টাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেই।

দীপু বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে ফাইনালে জয়ের পর বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা স্বাভাবিকভাবেই উচ্ছ্বসিত ছিল। আমাদের কোচিং স্টাফ যথেষ্ট সাপোর্ট দিয়েছেন। এরকম কোচিং স্টাফ পাওয়া খুবই ভাগ্যের ব্যাপার। আমরা খুব ভালো একটা টিম হিসেবে খেলেছি।

‘আজকের এ অবস্থানে আসার পেছনে মা ফেরদৌস বেগম, বড় ভাই আবুল হোসেন বাবু আর দুলাভাই ছিলেন পাশে। পাড়ার ভাই সুদীপ্ত আমাকে ইস্পাহানী ক্লাবে ভর্তি করিয়ে দেন। সবসময় তিনি সাহস ও সমর্থন দিয়ে গেছেন। আমিও সাকিব ভাই, তামিম ভাইদের মতো লিজেন্ড হতে চাই, বিশ্বের ১ নম্বর অলরাউন্ডার হতে চাই, চাই দেশের ১০জন ব্যাটসম্যানের ১জন হতে’।

রোববার (৯ ফেব্রুয়ারি) পচেফস্ট্রুমে চারবারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে ৩ উইকেটে হারিয়ে জয় পায় বাংলাদেশের যুবারা। শাহাদাত হোসেন দীপু স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে খেলেছেন ৭৪ রানের ইনিংস। এবারের যুব বিশ্বকাপে ৬ ম্যাচে এক হাফ সেঞ্চুরিতে মোট রান করেছেন ১৩১। স্ট্রাইক রেট প্রায় ৭৪। হাঁকিয়েছেন ১১ চার ও ১ ছক্কা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*