তাজা খবর
করোনার উপসর্গ নিয়ে কলেজশিক্ষকের মৃত্যু, নিজ গ্রামে লাশ দাফনে বাধা

করোনার উপসর্গ নিয়ে কলেজশিক্ষকের মৃত্যু, নিজ গ্রামে লাশ দাফনে বাধা

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় করোনার উপসর্গ নিয়ে এক কলেজশিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাঁর মৃত্যু হয়। করোনায় আক্রান্ত সন্দেহে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে রাতে নিজ এলাকার লোকজন লাশ দাফনে বাধা দেয়। পরে শুক্রবার ভোরে কর্মস্থল এলাকা রাঙ্গুনিয়ায় তাঁর লাশ দাফন করা হয়েছে।

মারা যাওয়া শিক্ষকের বাড়ি রাউজান উপজেলায়। তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৯ বছর। তিনি রাঙ্গুনিয়া উপজেলার একটি গ্রামে ভাড়া বাসায় পরিবার নিয়ে থাকতেন। রাঙ্গুনিয়া সৈয়দা সেলিমা কাদের চৌধুরী ডিগ্রি কলেজের শিক্ষক ছিলেন তিনি।

ওই শিক্ষকের স্বজনেরা জানান, গতকাল রাত আটটার দিকে শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

মুঠোফোনে ওই শিক্ষকের ছেলে বলেন, গতকাল রাত নয়টার দিকে তাঁর বাবার লাশ অ্যাম্বুলেন্সে করে রাউজানের নিজ গ্রামে আনা হয়। করোনায় সংক্রমিত ছিলেন সন্দেহে এ সময় অ্যাম্বুলেন্স থেকে লাশ নামাতে দেয়নি নিজ এলাকার লোকজন। বেশ কয়েক ঘণ্টা চেষ্টা করে ব্যর্থ হওয়ার পর লাশের গাড়ি রাত ১২টার দিকে রাঙ্গুনিয়ায় ফিরিয়ে নেওয়া হয়। এরপর রাঙ্গুনিয়া থানার পুলিশ, গাউছিয়া কমিটি নামে একটি সংগঠন, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় আজ ভোরে জানাজা শেষে মরিয়মনগর ইউনিয়নে একটি কবরস্থানে লাশ দাফন করা হয়েছে।

রাঙ্গুনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক নাজমুল হক বলেন, শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় ওই ব্যক্তিকে গতকাল হাসপাতালে আনা হয়। কিন্তু এর আগেই তিনি মারা যান। তাঁর স্বজনেরা জানিয়েছেন, কয়েক দিন ধরে তিনি জ্বর ও শ্বাসকষ্ট ভুগছিলেন।

৯ জুন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দিয়েছিলেন ওই কলেজশিক্ষক। কিন্তু এখনো প্রতিবেদন পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*